সংকর্ষ চান্দা: ২৩ বছর বয়সে শেয়ার মার্কেটে টাকা লাগিয়ে ১০০ কোটি টাকার মালিক

Share Market News: শেয়ার মার্কেটে টাকা লাগে মুনাফা তুলতে কে চায় না। শেয়ারবাজারের বুল (Sharemarket Bull) নামে পরিচিত ওয়ারেন বাফেট, রাকেশ ঝুনঝুনওয়ালা, বেঞ্জামিন গ্রহাম, রাধাকৃষ্ণ দামানি এদেরকে কে না চেনে। এরা হলেন শেয়ার বাজারের সবচেয়ে বড় বিনিয়োগকারী। এদের মধ্যে আরেকটি নাম যুক্ত হয়ে গেছে তিনি হলেন ২৩ বছর বয়সি সংকর্ষ চান্দা (Sankarsh Chandra)।

হায়দ্রাবাদের ২৩ বছর বয়সী সংকর্ষ চান্দা মাত্র ১৭ বছর বয়স থেকে শেয়ারবাজারে বিনিয়োগ করা শুরু করে দেয়। আর মাত্র ৬ বছর বিনিয়োগ করে সংকর্ষ চান্দা ১০০ কোটি টাকার সাম্রাজ্য তৈরি করে ফেলে

শংকর চন্দ্র ইনভেস্টর এর পাশাপাশি একটি স্টার্টআপ কোম্পানির (Savart App) প্রতিষ্ঠাতা ও। তার এই স্টার্টআপ শেয়ারবাজার মিউচুয়াল ফান্ড ও বন ইত্যাদিতে ইনভেস্টরদের বিনিয়োগ করতে সাহায্য করে।মাত্র ৮ লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করে তার কোম্পানির সূচনা করেন

২০১৭ সালে কলেজে বিটেক কম্পিউটার সায়েন্স নিয়ে পড়ছিলেন। ডেগ দ্বিতীয় বর্ষ চলাকালীন স্টক মার্কেটে নিজেকে পুরোপুরি কনসেনট্রেট করার জন্য কলেজ ছেড়ে দেন। তারপর সে শেয়ার মার্কেট নিয়ে পড়াশোনা শুরু করে দেয়।

সংকর্ষ হায়দ্রাবাদের একটি স্কুল থেকে দ্বাদশ শ্রেণী উত্তীর্ণ হওয়ার পর, ২০১৬ সালে প্রথমবার শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ করে মাত্র কুড়ি হাজার টাকা লাগিয়ে। তারপর দু’বছর ধরে প্রতিদিন তার মুনাফা বৃদ্ধি পেতে থাকে।

সংকর্ষের কথায়, “আমি দু বছরে মাত্র দেড় লক্ষ টাকা বিনিয়োগ করেছি, আর এই দু’বছরেই আমার শেয়ার মার্কেট এর ভ্যালু ১৩ লক্ষ টাকা হয়ে গেছে। ২০১৭ সালে ত্ আমার স্টার্টআপ শুরু করার জন্য ৮ লক্ষ টাকার শেয়ার বিক্রি করে দিই আর বাকি টাকাগুলো ইনভেস্ট করে গেছি।”

সংকর্ষ আরো বলেন যে,”আমার মোট সম্পত্তির পরিমাণ এখন ১০০ কোটি টাকার গণ্ডি পার করে গেছে। এটা শুধু আমার শেয়ার বাজারে বিনিয়োগ আর আমার কোম্পানির ভ্যালুয়েশন নিয়ে।

সংকর্ষ চান্দা আমেরিকান ইকোনমিস্ট বেঞ্জামিন গ্রহাম এর একটি প্রতিবেদন পড়ার পর তার শেয়ার বাজারের দিকে আগ্রহ বাড়তে থাকে। ১৪ বছর বয়স থেকে বেঞ্জামিন গ্রহাম কে ফাদার ইনভেস্টিং রূপে পরিচিত ছিলেন।

সংকর্ষ চান্দা কোম্পানি প্রথম বছর ১২ লক্ষ, দ্বিতীয় বছর ১৪ লক্ষ, তৃতীয় বছর ৩২ লক্ষ, ২০২০-২১ সালে মোট ৪০ লক্ষ টাকার ব্যবসা করেছে।

সংকর্ষ চান্দা (Sankarsh Chanda) লেখালেখিও করে থাকেন, 2016 সালে একটি বই প্রকাশ করেন ‘ফিনান্সিয়াল নিবারণ’ (Financian Nirvan) এই বইটিতে ব্যবসা ও বিনিয়োগের মধ্যে কার পার্থক্য টি খুব ভালোভাবে বুঝিয়েছেন। এছাড়াও তিনি কয়েকটি বইয়ের কথা বলেছেন নতুন ইনভেস্টরদের জন্য – ইন্টেলিজেন্ট ইনভেস্টর, সিকিউরিটি অ্যানালিসিস, ফাস্ট মিনিটস অফ ইউনিভার্সিটি

Leave a Comment